রাত ১০:৫৯
বন্ধ হচ্ছে গ্রামীণফোনের বিজ্ঞাপনঅধ্যাপক আনিসুজ্জামানের জন্মদিনবিরক্তিকর সহকর্মীকে মোকাবিলার কৌশল কি?আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে চলাচলে নির্দেশনাআমিরাতে চালু হচ্ছে শ্রমবাজারবিশ্ব ইজতেমা আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হচ্ছে আজসংরক্ষিত নারী আসনে ৪৯ নারী সংসদ নির্বাচিতআবুধাবি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রীদক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের ভূমিকম্পের ৪.৭ মাত্রাগুজব শেয়ার দিলে পরিণতি হবে ভয়াবহ

একটি মানুষও বাসস্থানের অভাবে থাকবে না

ডেস্ক: গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের অঙ্গীকার, অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান, চিকিৎসা এবং আধুনিক রাষ্ট্রীয় সুযোগ-সুবিধা সকল নাগরিককে নিশ্চিত করা। নাগরিক দয়ার পাত্র নয়, নাগরিকের সাংবিধানিক অধিকার রাষ্ট্র নিশ্চিত করবে। তার মৌলিক অধিকারের অন্যতম হলো, আবাসন।

মঙ্গলবার (৫ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর উত্তরার ১৮ নং সেক্টরে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)-এর উত্তরা এপার্টমেন্ট প্রকল্প পরিদর্শনকালে অনুষ্ঠিত বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, বাসস্থানের পরিকল্পিত, পরিবেশসম্মত ও সময়োপযোগী ব্যবস্থা রাষ্ট্রের দায়িত্ব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেটাকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়েছেন। গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ, বাংলাদেশের একটি মানুষও বাসস্থানের অভাবে থাকবে না, কোনো মানুষই যেনো ভাসমান না থাকে।

শহরের নাগরিক সুবিধাকে গ্রামে পৌঁছে দেয়া, নির্বাচনী অঙ্গীকার ছিলো উল্লেখ করে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী বলেন, সে অঙ্গীকারকে বাস্তবে রূপ দেয়ার জন্য গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় কাজ করছে। ইতোমধ্যে প্রধানন্ত্রীর এ অঙ্গীকার বাস্তবায়নের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। নাগরিক সুবিধা শহরে যেটা আছে, তা গ্রামে পৌঁছে দেয়া হবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, শহরের মানুষরা শুধু নাগরিক সুবিধা ভোগ করবে, গ্রামের মানুষরা কেনো নয়। শেখ হাসিনা সরকারের ওপর মানুষ আস্থা রেখেছেন উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল বিশ্বের কাতারে এনেছেন, ভবিষ্যতে উন্নত বাংলাদেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করবেন, দেশে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বেড়েছে, সামাজিক সূচকে বাংলাদেশের অগ্রগতি হয়েছে, মাথাপিছু আয় বেড়েছে, মানুষের গড় আয় বেড়েছে, শিশু মৃত্যু ও মাতৃমূত্যুর হার কমেছে, সবকিছু মিলিয়ে বাংলাদেশ একটি উন্নত রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থায় উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে।

পূর্ত বিভাগ, রাজউক, গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ সবার মধ্যে একটি ভালো কাজের প্রতিযোগিতার প্রয়োজনীয়তার কথাও বলেন গৃহায়নমন্ত্রী।

বাংলাদেশের আবাসন ব্যবস্থায় আমরা একটি বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনার প্রত্যয় ব্যক্ত করে মন্ত্রী বলেন, ঝিলমিল প্রকল্প, পূর্বাচল প্রকল্প, উত্তরা ৩য় ফেজ, জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষের বিভিন্ন হাউজিং প্রকল্প, উত্তরায় পরিকল্পনাধীন হাই রাইজ বিল্ডিং প্রকল্প, এসব ক্ষেত্রে বিদেশি বিনিয়োগকারীরাও এগিয়ে আসছেন। আমরা কাজ করতে চাই। আমরা বাংলাদেশকে সিঙ্গাপুর বানাতে চাই।

Top