সকাল ১০:২২
বিএনপি’র শুভ বুদ্ধির উদয় হবে : আইনমন্ত্রীদুর্নীতির বিরুদ্ধে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা : প্রধানমন্ত্রীদুর্নীতির বিরুদ্ধে সবরকম ব্যবস্থা গ্রহণ করবোস্ত্রীর জন্মদিন ভুললেই ডিভোর্স!স্বজনপ্রীতি হচ্ছে দুর্নীতির উল্টো পিঠযেই দুর্নীতি করুক ছাড় দেয়া হবে না : গণপূর্তমন্ত্রীআন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০১৯ এর আন্তঃমন্ত্রণালয় সভাপ্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা হলেন জয়সৌদির ধর্মত্যাগী সেই কিশোরী নাম পাল্টালেনজাতিসংঘের এক তৃতীয়াংশ কর্মীই যৌন হয়রানির শিকার

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম কিনছেন শমী কায়সার

নিজস্ব প্রতিবেদক: ফেনী-৩ আসন সোনাগাজী ও দাগনভূঞা উপজেলা নিয়ে গঠিত। এ আসনে নৌকা প্রতীক বরাদ্দ পেতে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন সংগ্রহ পত্র করেছেন শহীদ বুদ্ধিজীবী শহিদুল্লাহ কায়সার ও লেখক, সাবেক সংসদ সদস্য পান্না কায়সার এর মেয়ে শমী কায়সার । তিনি বাংলাদেশের খ্যাতিমান অভিনেত্রী, প্রযোজক ও নির্মাতা এবং দৈনিক প্রথম কথার ব্যবস্থাপনা সম্পাদক।

রোববার দুপুরে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে এসে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন শহীদ বুদ্ধিজীবীর মেয়ে।

উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশন কর্তৃক একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর গত শুক্রবার থেকে মনোনয়নপত্র বিতরণ শুরু করে আওয়ামী লীগ। প্রথম দিনেই এক হাজার ৩২৮ জন আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন।

মনোনয়নপত্র বিতরণের দ্বিতীয় দিনে গত শনিবার আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে এক হাজার ৮৭২টি মনোনয়নপত্র বিতরণ হয়েছে।

গত শনিবার মনোনয়নপত্র বিতরণ কার্যক্রম শেষে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ৩২০০ মনোনয়নপত্র বিক্রি হয়েছে আর জমা পড়েছে জমা পড়েছে ৪৬০। তফসিল অনুযায়ী, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হবে ২৩ ডিসেম্বর, মনোনয়নপত্র জমার শেষ সময় ১৯ নভেম্বর, মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের তারিখ ২২ নভেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৯ নভেম্বর এবং ৫ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে।

ফেনী -৩ আসন থেকে ইতিপূর্বে যারা মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন তাদের মধ্যে রয়েছেন- জয়নাল হাজারী, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সাবেক সহ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবুল বাশার, মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচী, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও মার্কেন্টাইল ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান আক্রাম হোসেন হুমায়ুন, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক ও এনআরবি ব্যাংকের চেয়ারম্যান নিজাম চৌধুরী, দাগনভূঞা উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা যুবলীগের সভাপতি দিদারুল কবীর, সোনাগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জেড এম কামরুল আনাম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ফেনী সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুর রহমান, জাপান আওয়ামী লীগের সভাপতি সামছুল আলম ভুট্টু ও আওয়ামী লীগ নেতা দিদারুল আলম।

শমী কায়সার নব্বই দশক থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত অভিনয়ের মধ্যেই ছিলেন। ২০০১ সালের পর থেকে ২০০৭-০৮ পর্যন্ত দেশে মিডিয়ায় অস্থির ও প্রতিকূল অবস্থা বিরাজ করেছিল। একারণে অভিনয় থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন গুণী এই অভিনেত্রী। বর্তমানে শমী কায়সার ব্যবসায়িক সংগঠন এফবিসিআইর পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

Top