সকাল ৮:৫৪
ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তারেক সাক্ষাৎকার নিচ্ছেনথার্টিফার্স্ট নাইটে কোনো অনুষ্ঠান নয় : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীআজকের সংখ্যা ১৮/১১/১৮দিনাজপুরে তিনদিন ব্যাপী প্রাণ চিনিগুড়া চাল নবান্ন উৎসব পালিতআজকের সংখ্যা ১৫/১১/১৮সোয়া দুই কোটি টাকায় বিক্রি হলো আত্মহত্যার চিঠিপালিত হচ্ছে বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবসনির্বাচন নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কূটনীতিক ব্রিফ বৃহস্পতিবারচাঁপাইনবাবগঞ্জে সম্প্রীতি বাংলাদেশের সমাবেশআজকের সংখ্যা ১৪/১১/১৮

ভুয়া তারকায় ফেসবুক ভর্তি !

ডেস্ক :  ফেসবুক এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অন্যতম জনপ্রিয়। এর কল্যাণে দুনিয়াজুড়ে যোগাযোগটা এখন হাতের মুঠোয়। হাজার হাজার মাইলকে জয় করে নিয়েছে মানুষ। ইচ্ছে হলেই কথা বলা যাচ্ছে, ছবি পাঠানো যাচ্ছে, ভিডিও কল দিয়ে দেখাও যাচ্ছে ফেসবুকের সহযোগী অ্যাপস ম্যাসেঞ্জারে।

সহজলভ্য এই যোগাযোগ ব্যবস্থায় আশঙ্কাজনকভাবেই সহজ হয়ে গেছে সম্পর্ক। হৃদয়ে হৃদয়ে টান নেই, সম্প্রীতির মজবুত বন্ধন নেই। মূল্য হারাচ্ছে ভালোবাসাবাসির।

আর সবার মতো ফেসবুক ব্যবহার করেন নানা অঙ্গনের তারকারাও। ফেসবুকে ইচ্ছেমতো দর্শক বা ভক্তরা প্রিয় তারকার সঙ্গে আড্ডা মারছেন, ছবি দেখছেন। এতে তারকার সঙ্গে ভক্তদের দূরত্ব কমছে ঠিকই, কমে যাচ্ছে তারকাদের প্রতি আগ্রহটাও। সে ভিন্ন প্রসঙ্গ। অনেক কাটছেঁড়া হয়েছে তারকাদের যত্রতত্র ফেসবুক ব্যবহারের অসুবিধা নিয়ে।

বর্তমানে ফেসবুক জুড়ে ভুয়া তারকার ছড়াছড়ি। হয়ত প্রশ্ন আসে, তারকা আবার ভুয়া কেমন করে হয়? উত্তরটা খুব সহজ। ফেসবুকে রোজ রোজই দেখা যায় নানা তারকার নামের ভুয়া আইডি ও পেজ। যারা আসল-নকলের ফারাকটা ধরতে পারছেন না তারা ভুয়াকেই আসল বলে ধরে নিচ্ছেন। বন্ধুত্বে আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন, কেউ আবার ভুয়া আইডি থেকে আমন্ত্রিত হয়ে তাকে বন্ধু হিসেবে গ্রহণও করছেন। ভুয়া পেজে লাইক দিয়ে অন্যের ব্যবসায়িক ফায়দায় সুযোগ করে দিচ্ছেন।

এসব ভুয়া আইডি ও পেজ থেকে ছড়ানো হয় নানা রকম বিভ্রান্তি, গুজব। অনেকে প্রতারণার ফাঁদ পাতেন কৌশলে। সেই প্রতারণার দায় নিতে হয় সত্যিকারের তারকাকে। এরকম ঘটনা অনেক ঘটেছে। সেসব নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদও হয়েছে। ‘অমুক তারকার নামে ভুয়া আইডি খোলে টাকা আত্মসাৎ’, ‘ভুয়া ফেসবুক আইডি নিয়ে বিব্রত অমুক তারকা’… ইত্যাদি।

একটা সময় হালের ক্রেজ সব তারকাদের নামে ভুয়া আইডি হত। সম্প্রতি ফেসবুকে দেখা যাচ্ছে সিনিয়র তারকাদের নামেও মিথ্যে আইডির ছড়াছড়ি।

কী উদ্দেশ্যে চালানো হয় এসব ভুয়া আইডি। বিশেষজ্ঞরা বেশ কিছু কারণকেই দায় দিয়েছেন। তবে সবচেয়ে এগিয়ে তারকাদের নাম ভাঙিয়ে ফলোয়ার বাড়িয়ে আইডির ব্যবসা করার প্রবণতা।

এরপরই রয়েছে তারকাদের নামকে টোপ বানিয়ে ফেসবুকের মাধ্যমে টাকা পয়সা হাতিয়ে নেয়া। নানা রকম ব্ল্যাকমেইলিংও এর অন্তর্ভুক্ত। পুরুষ তারকাদের ভুয়া আইডি চালু করে নারীদের যৌন হয়রানিও করা হয়ে থাকে।

তারকাদের দাবি, এসব ভুয়া আইডি ও পেজের বিরুদ্ধে সাইবার ক্রাইমসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের সক্রিয় হওয়া উচিত। পাশাপাশি ফেসবুক ব্যবহারকারীদের সচেতন হতে হবে ভুয়া আইডি ও পেজ নির্বাচনে।

Top