দুপুর ১:৪২
শেখ হাসিনাকে কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছাওষুধ ছাড়াই সাইনাস দূর করবেন যেভাবেসড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীর সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ১৯ জানুয়ারিভারত সফরে যাচ্ছেন সিইসিমানবকণ্ঠের সম্পাদক আবু বকর চৌধুরী আর নেইনিরাপদ নয় চেহারা শনাক্তকরণ প্রযুক্তিসংরক্ষিত নারী আসনে আলোচনায় সংস্কৃতি অঙ্গনের তারকারানারী আসনে আওয়ামী লীগের ফরম বিক্রি শুরুসাংবাদিকদের ওয়েজবোর্ড ও আবাসনের সুখবর শোনালেন তথ্যমন্ত্রী

খালেদার বিরুদ্ধে পরোয়ানার বিষয়ে আদেশ ১১ অক্টোবর

ডেস্ক: ধর্মীয় উসকানি ও বিভিন্ন শ্রেণির মানুষের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টির অভিযোগের মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানার বিষয়ে আদেশের জন্য ১১ অক্টোবর দিন ধার্য করেছেন আদালত।

আজ (রোববার) ঢাকা মহানগর হাকিম (এসিএমএম) আসাদুজ্জামান নূর প্রয়োজনীয় নর্থি পর্যালোচনা করে এ দিন ধার্য করেন।

এর আগে ২৩ জুলাই ঢাকা মহানগর হাকিম আবু সাঈদের আদালতে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানার আবেদন করেন মামলার বাদী জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এ বি সিদ্দিকী।

শুনানি শেষে আদালত আবেদনটি নথিভুক্ত করেন এবং তদন্ত প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে আদেশের জন্য ১৬ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেন।

তার আগে ৩০ জুন খালেদার বিরুদ্ধে প্রতিবেদন দাখিল করেন শাহবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জাফর আলী বিশ্বাস।

মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, ২০১৪ সালের ১৪ অক্টোবর রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে হিন্দু সম্প্রদায়ের শুভ বিজয়ার অনুষ্ঠানে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের একপর্যায়ে খালেদা জিয়া বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ধর্মনিরপেক্ষতার মুখোশ পরে আছে। আসলে দলটি ধর্মহীনতায় বিশ্বাসী।’

তিনি আরও বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সব ধরনের মানুষের ওপর আঘাত করে। আর লোক দেখানো ধর্মনিরপেক্ষতার কথা বলে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান দখল করে নেয়। ধর্মনিরপেক্ষতার মুখোশ পরা এ জবর-দখলকারী সরকারের হাতে কোনো ধর্মের মানুষই নিরাপদ নয়।’

ওই বক্তব্যের জের ধরে দণ্ডবিধির ১৫৩ (ক) ও ২৯৫ (ক) ধারায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ঢাকা মহানগর হাকিম মোস্তাফিজুর রহমানের আদালতে ২০১৪ সালের ২১ অক্টোবর নালিশি মামলাটি করেন জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এ বি সিদ্দিকী।

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে ২০১৪ সালের ২১ অক্টোবর আদালত মামলাটি শাহবাগ থানার একজন পরিদর্শক পদমর্যাদার কর্মকর্তাকে তদন্তের নির্দেশ দেন।

উল্লেখ্য,দুদকের দায়ের করা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসানকে গত ৮ ফেব্রুয়ারি পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ড. আখতারুজ্জামান। রায়ের পর খালেদা জিয়াকে রাজধানীর নাজিমউদ্দিন রোডের পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হয়েছ।

Top