সকাল ৯:০১
বিএনপি’র শুভ বুদ্ধির উদয় হবে : আইনমন্ত্রীদুর্নীতির বিরুদ্ধে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা : প্রধানমন্ত্রীদুর্নীতির বিরুদ্ধে সবরকম ব্যবস্থা গ্রহণ করবোস্ত্রীর জন্মদিন ভুললেই ডিভোর্স!স্বজনপ্রীতি হচ্ছে দুর্নীতির উল্টো পিঠযেই দুর্নীতি করুক ছাড় দেয়া হবে না : গণপূর্তমন্ত্রীআন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০১৯ এর আন্তঃমন্ত্রণালয় সভাপ্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা হলেন জয়সৌদির ধর্মত্যাগী সেই কিশোরী নাম পাল্টালেনজাতিসংঘের এক তৃতীয়াংশ কর্মীই যৌন হয়রানির শিকার

সম্ভবত ২৭ ডিসেম্বর নির্বাচন হবে: অর্থমন্ত্রী

ডেস্ক: আগামী ২০ দিনের মধ্যে নির্বাচনকালীন সরকার গঠন করা হবে বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। গতকাল বুধবার সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে সিলেট সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর নেতৃত্বে কাউন্সিলরদের সঙ্গে বৈঠকে অর্থমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘তত্ত্বাবধায়ক সরকার বলতে কিছুই নেই। থাকবে অন্তর্বর্তীকালীন (নির্বাচনকালীন) সরকার। আমার ধারণা, ২৫ সেপ্টেম্বরের আগেই তা গঠন করা হবে।’ তবে এই সরকার কত সদস্যের হবে, সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু বলেননি অর্থমন্ত্রী।

এক প্রশ্নের জবাবে মুহিত বলেন, ‘নির্বাচনকালীন সরকারে বিএনপির থাকার কোনো সুযোগ নেই। কারণ বর্তমান সরকারে তাদের কোনো প্রতিনিধি নেই। নির্বাচনকালীন সরকারে সুধীসমাজের প্রতিনিধিও থাকার সুযোগ নেই। কারণ ওই সরকারে নির্বাচিতরাই থাকবেন।’

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আগামী ২৭ ডিসেম্বর নির্বাচন হলে আইন অনুযায়ী সেপ্টেম্বরের ২৫, ২৬ তারিখের মধ্যে নির্বাচনকালীন সরকার গঠন করতে হবে।’

সংসদ ভেঙে দেওয়া হবে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘না, সংসদ ভাঙা হবে না। সংসদ ভেঙে দেওয়ার বিষয়ে সংবিধানে কোনো প্রভিশন নেই। সংসদ ভাঙবে নির্বাচনের অনেক পরে। পরবর্তী সংসদ গঠন হলে তখনই সংসদ ভাঙবে। তার মানে আগামী ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত এ সংসদের প্রাণ আছে।’

অর্থমন্ত্রী আরো বলেন, ‘ডিসেম্বর মাসে নির্বাচনের জন্য দিন পাওয়া কঠিন। তবে নির্বাচন কমিশন ২৭ ডিসেম্বর দিন ঠিক করেছে। সম্ভবত ২৭ ডিসেম্বরই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।’ নির্বাচন প্রতিযোগিতাপূর্ণ ও নিরপেক্ষ হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘সিলেট সিটিতে যেমন অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন হয়েছে, জাতীয় সংসদ নার্বাচনও তেমন নিরপেক্ষ হবে।’

Top