রাত ৩:১৯
‘দহন’ থেকে বাদ পড়লেন বাঁধন!সাফল্য গাঁথা: ফরিদপুরের একজন অদম্য রোকেয়ার গল্প‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১১বার কাউন্সিল নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণা ২৬ মেএইচবিআরআই খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদনহা-মীম গ্রুপের এমডিকে দুদকের জিজ্ঞাসাবাদমুক্তিযোদ্ধার অসম্মানজনক দাফনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা : মোজাম্মেল হকরাজীবের দুই ভাইকে ক্ষতিপূরণের আদেশ স্থগিতযুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, এতিম ও আলেম-ওলামাদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ইফতাররাশিয়ায় দাবানলে ২৩ হাজার হেক্টর বনাঞ্চল ধ্বংস

আমিরাতে বাংলাদেশ কন্সুল্যেট দুবাইয়ে ৭ মার্চ উদযাপিত

আমিনুল হকঃ  বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেওয়া ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ বঙালি জাতিকে শেকল ভাঙার জন্য অনুপ্রেরণা যুগিয়েছিলো। ৭ মার্চের ভাষণ বর্তমানে বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে স্থান পেয়েছে। এ ভাষণ যেন একটি মহাকাব্য। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এ ভাষণে দলমত নির্বিশেষে মানুষ স্বাধীনতার জন্য ঐক্যবদ্ধ হয়ে তৈরী হয়েছিলেন হায়েনার হাত থেকে সোনার বাংলাকে মুক্ত করতে। স্বাধীন বাংলায় ৭ মার্চের ভাষণ স্বর্নাক্ষরে আজীবন লিপিবদ্ধ থাকবে।

বাংলাদেশ কনসুল্যেট জেনারেল দুবাই ও উত্তর আমিরাতের উদ্যোগে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্টানে এসব বলেন বক্তারা। বুধবার বাংলাদেশ কন্সুল্যেট দুবাইয়ের কনফারেন্সে রুমে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন লেবার কাউন্সেলর ও ভারপ্রাপ্ত কনস্যাল জেনারেল এস এম জাকির হোসাইন। কন্সুল্যেটের দূতালয় প্রধান প্রভাষ লামারাং এর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন কন্সুল্যেটের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর এ কে এম রফিক আহম্মদ ও কনসুলেটের প্রথম সচিব (শ্রম) এ কে এম মিজানুর রহমান।

আরো বক্তব্য রাখেন প্রকৌশলী আবু জাফর চৌধুরী, প্রকৌশলী এস এ মোর্শেদ, অব. ল্যাফট্যান্যান্ট গুলশান আরা, কাউছার নাজ, শাহ মাকসুদ, এম এ খালেদ, সহ আরো অনেকে। অনুষ্ঠানে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাণী পাঠ করা হয়।

উল্লেখ্য, অনুষ্টানের শুরুতেই বাংলাদেশ কন্সুল্যেট ও বাংলাদেশ কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

Top