সন্ধ্যা ৬:৩৭
আমি বিবাহিত না : সিমলানড়াইলের মামলায় খালেদার ৬ মাসের জামিনমহাসড়কেও চলবে না ফিটনেসবিহীন গাড়ি: আইজিপিপ্রধানমন্ত্রী টুঙ্গিপাড়া যাচ্ছেন বুধবারভারতের সাবেক স্পিকার সোমনাথ চ্যাটার্জির মৃত্যুমন্ত্রিসভার বৈঠক চলছে১৫ আগস্টের ঘাতকরা এখনো সক্রিয় : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী২২ আগস্ট পবিত্র ঈদুল আজহামুক্তিযুদ্ধ ও সৎসঙ্গের অবদানে শহীদ বুদ্ধিজীবী প্যারী মোহন আদিত্যআজ জানা যাবে ঈদ কত তারিখ

মাসের শেষে আরেকটি শৈত্যপ্রবাহ

ডেস্ক: শৈত্যপ্রবাহের রেশ সবে কাটতে শুরু করেছে। এবারের হাড় কাঁপানো শীত অতীতের রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। তাপমাত্রা কিছুটা বেড়েছে। তবে অনেক স্থানে কনকনে ঠাণ্ডা এখনও আছে। এরই মধ্যে আবহাওয়া অধিদপ্তর আরেকটি শৈত্যপ্রবাহের পূর্বাভাস দিয়েছে। এ মাসের শেষের দিকে মাঝারি মাত্রার আরেকটি শৈত্যপ্রবাহটি বয়ে যাবে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে। গোটা বিশ্বেই এবার শীত হয়ে উঠেছে চরমভাবাপন্ন। শীতে জমে বরফ হচ্ছে হাঙর আর কুমির। কানাডায় ফুটন্ত পানি বাতাসে ছুঁড়লে তা তুষার হয়ে ঝরছে। বাংলাদেশেও শীত তার ক্ষমতা দেখিয়েছে। জানুয়ারির শুরুর দিকে রাজধানীসহ বিভিন্ন অঞ্চলে বয়ে যায় মাঝারি থেকে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ। জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। শীতের তীব্রতা বেশ কিছু প্রাণ ঝরিয়েছে। গত ৮ জানুয়ারি উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়। ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল কিছু অঞ্চলে। এর আগে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে এখনও রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের কোনো কোনো জেলায় তাপমাত্রা এখনো ১০ ডিগ্রির নিচে। রাজশাহীতে বুধবার সকালে তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৯ ডিগ্রির কাছাকাছি।

Top