রাত ১:২২
প্রধান তথ্য কমিশনার মরতুজা আহমদের যোগদানবড়পুকুরিয়া কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে নিয়োগের দাবিতে সংবাদ সম্মেলনরাশিয়ায় তাপমাত্রা মাইনাস ৬৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস!মৃত্যুপরবর্তী কাজে স্বজনদের বিরক্ত না করতে উৎসবপ্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিলে ২০ প্রতিষ্ঠানের অনুদান প্রদানপাঁচ দিনের সফর শেষে দেশে ফিরলেন প্রণব মুখার্জিবিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব আগামীকাল থেকে শুরুনির্যাতনের শিকার পূর্ণিমা শীলকে নিয়োগ দিলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রীনিষেধাজ্ঞা উঠে গেল চার রাজ্যেযশোরে শতবর্ষী গাছ কাটার সিদ্ধান্ত হাইকোর্টে স্থগিত

অবহেলা, অসম্মানের জীবন নিয়ে আক্ষেপ মমতার

ডেস্ক; বিতর্ক, মামলা, জল্পনা- সবকিছু পেরিয়ে অবশেষে ডি লিট সম্মান পেলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে ডি লিট গ্রহণের সময় আবেগাপ্লুত মমতা বললেন, ‘আমার জীবন অবহেলার, অসম্মানের। এমন সম্মান পাব কোনোদিন ভাবিনি।’

বৃহস্পতিবার সাহিত্য, সংস্কৃতি ও সামাজিক অবদানের জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ডি লিট সম্মানে ভূষিত করে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়। এই সম্মান গ্রহণের পর মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমি খুব সাধারণ। আমার জীবন অবহেলা, অসম্মানের, সংগ্রামের। সারা জীবন লড়াই করেছি। এই সম্মান দেওয়ার প্রস্তাব নিয়েও আমাকে কম অসম্মান করা হয়নি। আসব কি-না তা নিয়েও ভেবেছিলাম। আপনারা আমার জীবন পূর্ণ করে দিয়েছেন। আজকের দিনটি জীবনের মণিকোঠায় উজ্জ্বল হয়ে থাকবে। এর থেকে বড় সম্মান জীবনে আর কিছু চাই না। আজ আমি ধন্য। এই সম্মান আমার কর্মপ্রেরণা আরো বাড়িয়ে তুলবে। মানুষকে নিয়েই বাঁচব। আমি শুধু ভালোবাসার কাঙাল।’

পুরস্কার গ্রহণ অনুষ্ঠানে বিজেপিকে খোঁচা মারতে ছাড়েননি মুখ্যমন্ত্রী। তিনি কারো নাম না-করে বলেন, ‘দেশে অসহিষ্ণুতা বেড়ে যাচ্ছে। আমাদের সহিষ্ণু হতে হবে। আমাদের দেশ বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্যের দেশ। ইতিহাসকে যেন বিকৃত করা না-হয়। সহনশীলতা সবথেকে বড় গুণ।’

Top