রাত ১:২৮
প্রধান তথ্য কমিশনার মরতুজা আহমদের যোগদানবড়পুকুরিয়া কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে নিয়োগের দাবিতে সংবাদ সম্মেলনরাশিয়ায় তাপমাত্রা মাইনাস ৬৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস!মৃত্যুপরবর্তী কাজে স্বজনদের বিরক্ত না করতে উৎসবপ্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিলে ২০ প্রতিষ্ঠানের অনুদান প্রদানপাঁচ দিনের সফর শেষে দেশে ফিরলেন প্রণব মুখার্জিবিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব আগামীকাল থেকে শুরুনির্যাতনের শিকার পূর্ণিমা শীলকে নিয়োগ দিলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রীনিষেধাজ্ঞা উঠে গেল চার রাজ্যেযশোরে শতবর্ষী গাছ কাটার সিদ্ধান্ত হাইকোর্টে স্থগিত

শহীদ সাংবাদিক সিরাজুদ্দীন হোসেনের অপহরণ দিবস আজ

ডেস্ক: আজ ১০ ডিসেম্বর শহীদ সাংবাদিক সিরাজুদ্দীন হোসেনের ৪৭ তম অপরহণ দিবস। স্বাধীনতার প্রাক্কালে ১৯৭১ সালের এই দিনে ঘৃণ্য পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ও তাদের এদেশীয় দোসর আল বদর ও রাজাকার বাহিনীর বর্বররা তাকে তার ৫নং চামেলীবাগের বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে যায়, এরপর তাকে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি।

১৯৭১ সালের ডিসেম্বরে বুদ্ধিজীবী হত্যার নীল নকশার প্রথম শিকার হন সিরাজুদ্দীন হোসেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহপাঠি ও ঘনিষ্ঠ বন্ধু সিরাজুদ্দীন হোসেন ছিলেন দৈনিক ইত্তেফাকের কার্যনির্বাহী ও বার্তা সম্পাদক। বৃটিশ আমলের শেষভাগ থেকে শুরু করে তার সাংবাদিকতা জীবন স্বাধীনতা যুদ্ধ পর্যন্ত ব্যপ্ত। এই সময়ে দেশের সকল আন্দোলনের সঙ্গে তার ছিল সরাসরি যোগাযোগ। তিনি তার ক্ষুরধার লেখনির মাধ্যমে এ দেশের বঞ্চিত মানুষের কথা অসাধারণ দক্ষতায় সংবাদপত্রের পাতায় ফুটিয়ে তুলেছেন।

১৯৭১ সালে অবরুদ্ধ এই দেশে তিনি সাহসিকতার সঙ্গে সাংবাদিকতা করে গেছেন। সে সময় তার লেখা ‘ঠগ বাছিতে গাঁ উজাড়’, ‘অধূনা রাজনীতির কয়েকটি অধ্যায়’ ধরনের উপ-সম্পাদকীয় এবং ‘এতদিনে’ শিরোনামে সম্পাদকীয় মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষে তার দৃঢ় অবস্থানের সাক্ষ্য দেয়।

Top