রাত ৮:২৮
রোজা ও ঈদের পর আবারও মঞ্চ নাট্যাঙ্গন কর্মব্যস্তশপিং মল থেকে লাফ দিয়ে গরুর আত্মহত্যা!আগাম মৃত্যুর খবর দেন যে নারী!এশিয়ান গেমস সামনে রেখে প্রস্তুত হচ্ছে ফুটবল দলথিয়াগো সিলভাকে অপমান করেছেন নেইমার!জার্মানিতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে আহত ২৫, ভবন ধস‘আমাদের মেসেজ হলো শান্তিপূর্ণ নির্বাচন’মার্ক বাংলাদেশ শেয়ার কেলেঙ্কারি : আসামিদের জেল-জরিমানাফটিকছড়িতে শতবর্ষী সেতু দিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্নপ্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বিদায়ী সেনাপ্রধানের বৈঠক

সাপাহারে বিনামূল্যে ফাইটার কক বিতরণ

সুদাম চন্দ্র, নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাাঁর সাপাহারে বিনামূল্যে ফাইটার কক ও আঁচিল মুরগী বিতরণ করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় বরেন্দ্র ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন(বিডিও) এর ক্লাইমেট প্রকল্পের উদ্যোগে ২ টি আঁচিল মোরগ যার মূল্য ১৪হাজার(ফাইটার কক) ও ৮ টি আঁচিল জাতের মুরগী যার মূল্য ২০ হাজার(অর্জিনাল) মোট ৩৪ হাজার টাকার ফাইটার কক কলমুডাঙ্গা রিফ্লেকশন একশন সার্কেল ও জয়দেবপুর রামাশ্রম লোককেন্দ্র’র সভাপতি এবং খামারী মোসাঃ রফিনা বেগমের নিকট বিতরণ করা হয়েছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন বিডিও’র প্রোগ্রাম অফিসার সামসুল আলম, সহযোগি প্রোগ্রাম অফিসার সুদেশ চন্দ্র,একাউন্টেডেন্ট জাহাঙ্গীর আলম প্রমূখ।
উল্লেখ্য ২০১৩ সাল থেকে অত্র প্রকল্প আঁচিল মোরগ (ফাইটার কক) এবং গলাছিলা মুরগীর ক্রস ব্রিডিং এর মাধ্যমে মুরগীর নতুন জাত উদ্ভাবনের গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় এই মোরগ-মুরগীগুলো বিতরণ করা হয়। এ নতুন জাত উদ্ভাবনের বিশেষত্ব হচ্ছে-একেকটি প্রাপ্ত বয়স্ক আঁচিল মোরগ ওজনে প্রায় ৬/৭ কেজি হয়, খরা সহিষ্ণু এবং নিজেদের বন্য প্রাণির আক্রমন থেকে রক্ষা করতে সক্ষম। অন্যদিকে গলাছিলা মুরগী দেশী মুরগীর চাইতে আকারে বড়, খরা সহিষ্ণু এবং যথেষ্ট রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা সম্পন্ন। তাই এ দুইয়ের মাধ্যমে নতুন জাত মোরগ বরেন্দ্র এলাকার জন্য এক দিগন্তের সূচনা করবে। তাতে একদিকে যেমন সুস্বাদু মাংসের চাহিদা যেমন মিটবে তেমনি এ মুরগীর খামার করে তৃণমূল পর্যায়ের নারীরাও আর্থিকভাবে লাভবান হবেন।

Top