সকাল ৬:৫৯
12-12-2017Issueওয়ান প্লানেট শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে প্যারিসের পথে প্রধানমন্ত্রীশহীদ সাংবাদিক সিরাজুদ্দীন হোসেনের অপহরণ দিবস আজটাঙ্গাইল হানাদার মুক্ত দিবস আজরাষ্ট্রপতি ওআইসির সম্মেলনে যাচ্ছেন আজওয়ান প্লানেট শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে প্যারিসের পথে প্রধানমন্ত্রী11-12-2017Issueনিরাপত্তা ঝুকির চিঠি উপেক্ষাঃ উত্তরা নাটোর টাওয়ারে ভয়াবহ অগুন10-12-2017 issueবিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে আশুলিয়ায় স্বেচ্ছাসেবক লীগের যৌথ আলোচনা সভা

‘বাংলাদেশে গত এক বছরে নারী ও কন্যাশিশু ধর্ষণের সংখ্যা বেড়েছে’ -বলছে মহিলা পরিষদের রিপোর্ট

ডেস্ক: বাংলাদেশে চলতি বছর নারী ধর্ষণ এবং কন্যাশিশু নির্যাতনের ঘটনা গত বছরের তুলনায় বেড়েছে বলে দাবি করছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ।

এই বিষয়ে সংস্থাটি আজ একটি রিপোর্ট প্রকাশ করে বলেছে, ২০১৭ সালে প্রথম ১০ মাসে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ১ হাজার ৭৩৭টি, আর গত বছর অর্থাৎ ২০১৬ সালে এ সংখ্যা ছিল ১ হাজার ৪৫৩টি।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সভাপতি আয়েশা খানম বিবিসি বাংলাকে বলেন প্রতি বছরেই চার মাস পরপর তারা নারীর ওপর যৌন অপরাধ পরিস্থিতি সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট তৈরি করেন।

ধর্ষণ, ধর্ষণের পর হত্যা, গণধর্ষণ, হুমকি বা যৌন হয়রানির মতো অপরাধগুলোর তথ্য সংগ্রহের জন্য তারা ১৪টি সংবাদপত্র এবং তাদের শাখাগুলো থেকে পাওয়া তথ্য ব্যবহার করেন।আয়েশা খানম বলেন, এ ধরণের সব অপরাধের সংখ্যাই বাড়ছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে ২০১৬ সালে ধর্ষণের সংখ্যা ছিল ৭০৫ তাদের হিসেব মতে। ২০১৭ সালে এ সংখ্যা ৮৩৪-এ উঠেছে।”গণধর্ষণের সংখ্যা ২০১৬তে ছিল ১৩৯ আর এ বছর সেটা ১৯৩তে উঠেছে।”

এ ধরণের অপরাধ বাড়ার পেছনে প্রধান কারণ হিসেবে পিতৃতান্ত্রিক বা পুরুষতান্ত্রিক মানসিকতাকেই প্রধান বলে চিহ্নিত করেন আয়েশা খানম।তার কথায়, এ ধরণের যৌন অপরাধ দমনের জন্য কঠোর আইন থাকা সত্বেও এটা বাড়ছে।

সুত্র: বিবিসি বাংলা

Top