রাত ৩:২৬
‘দহন’ থেকে বাদ পড়লেন বাঁধন!সাফল্য গাঁথা: ফরিদপুরের একজন অদম্য রোকেয়ার গল্প‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১১বার কাউন্সিল নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণা ২৬ মেএইচবিআরআই খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদনহা-মীম গ্রুপের এমডিকে দুদকের জিজ্ঞাসাবাদমুক্তিযোদ্ধার অসম্মানজনক দাফনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা : মোজাম্মেল হকরাজীবের দুই ভাইকে ক্ষতিপূরণের আদেশ স্থগিতযুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, এতিম ও আলেম-ওলামাদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ইফতাররাশিয়ায় দাবানলে ২৩ হাজার হেক্টর বনাঞ্চল ধ্বংস

লক্ষ্মীপুরে মাদ্রাসা ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে শিক্ষক আটক

 

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধিঃ
লক্ষ্মীপুর সদর  উপজেলার নন্দনপুর কাদেরিয়া দাখিল মাদ্রাসার পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেনীর দুই ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে ইমাম হোসেন নামে এক শিক্ষককে আটকের পর পুলিশে সোপর্দ করে কর্তৃপক্ষ। শনিবার (২৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় মাদ্রাসার সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের সদস্য শাখাওয়াত হোসেন আরিফ আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

শিক্ষক ইমাম হোসেন নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার খানপুর গ্রামের আবদুল খালেকের ছেলে এবং ওই মাদ্রাসার কৃষি বিভাগের সহকারি শিক্ষক। ঘটনাকে ঘিরে যৌন হয়রানির শিকার ছাত্রীদের অভিবাবকরা শনিবার লক্ষ্মীপুর সদর থানায় মামলা দায়ের করে। এর আগে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ একই অভিযোগে অভিযুক্ত শিক্ষককে দুই দফা কারণ দর্শানোর নোটিশ দেন। কিন্তু সন্তোষজনক জবাব না দেয়ায় আজ দুপুরে ইমাম হোসেনকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে বলে জানায় তারা।

ভুক্তভোগী ও মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ জানায়, মাদ্রাসার অভ্যান্তরে প্রাইভেট পড়ানোর নাম করে কৃষি বিভাগের সহকারী শিক্ষক ইমাম হোসেন ছাত্রীদের দীর্ঘদিন যাবৎ নানাভাবে উক্ত্যক্ত ও যৌন হয়রানি করে আসছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে। সম্প্রতি পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণির দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনাটি অন্য সহপাঠীরা দেখে ফেলে। এ নিয়ে গত ২৩ সেটেম্বর মাদ্রাসা সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ করে শিক্ষার্থীরা। এরই প্রেক্ষিতে গত ৪ ও ১৫ অক্টোবর আলাদাভাবে অভিযুক্ত শিক্ষককে দুই দফা কারন দর্শানোর নোটিশ দেন মাদ্রাসা সুপার আতিকুর রহমান।

এ ব্যাপারে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ লোকমান হোসেন জানান, অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে ভিকটিমদের পরিবারের দায়ের করা মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Top